মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

আমাদের অর্জনসমূহ

   উন্নয়ন প্রকল্পের বিবরণীঃ-

 প্রকল্পের নামঃ- সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন কর্মসুচি (সিভিডিপি-২য় পর্যায়)।

 বাসত্মবায়ন  কালঃ-২০১১ সাল  হইতে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যমত্ম ।

 বাসত্মবায়নকারী মন্ত্রণালয়ঃ-পলস্নী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

 বাসত্মবায়নকারী সংস্থাঃ- সমবায় অধিদপ্তর,ঢাকা।

        উক্ত প্রকল্পের আওতায় ঈশ্বরগঞ্জ পৌরসভা  ও  ইউনিয়ন সমূহের ৬০(ষাট) টি গ্রামে  ০১টি করে সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতি নিবন্ধন দেওয়া হয়। উক্ত ৬০টি সমিতিতে ৬০জন গ্রাম কর্মী নিয়োগ প্রাপ্ত হয়। যারা সংশিস্নষ্ট সমিতির সদস্য এবং সমিতির ব্যবস্থাপনা কমিটি কর্তৃক মনোনীত । প্রকল্প থেকে মেয়াদ কাল পর্যমত্ম অর্থাৎ ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাস পর্যমত্ম প্রতি মাসে  সম্মানী ভাতা হিসাবে ২০০০/-(দুই হাজার) টাকা করে প্রদত্ত হয়েছে। বর্তমানে প্রকল্প মেয়াদ শেষ হওয়ার প্রেÿÿতে উক্ত ভাতা রহিত হয়। কিন্তু সমিতিগুলির আর্থ-সামাজিক কর্ম-কান্ড অব্যাহত রয়েছে।

   সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির গঠন প্রক্রিয়ার  লেখচিত্র ঃ

 ১। পরিচিতি ও গ্রাম সম্পর্কে জানা

 ২। গ্রাম সভা ও উদ্ধুদ্ধকরণ

 ৩। গ্রামবাসীদের সহমত পোষণও সমিতি গঠন

৪। বিশেষ সভায় অংশ গ্রহণমূলক গঠনতন্ত্র প্রণয়ন ও অনুমোদন ও নিবন্ধন।

৫।* ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা * সাপ্তহিক সভা * সদস্য ভর্তি * শেয়ার বিক্রয় ও সঞ্চয় জমা।

৬। * মূলধন গঠনে জোর দেয়া * প্রশিÿণের ব্যবস্থা করা (যেকোন প্রতিষ্ঠান হতে পারে) * মাসিক যৌথ সভা ও অংশগ্রহণমূলক পরিকল্পনা ।

৭। * প্রশিÿণ  *সমিতির নিজস্ব তহবিল থেকে ÿুদ্র ঋণ চালু।

৮। * কর্মসংস্থান/স্ব-কর্ম সৃষ্টি * আয়বৃদ্ধি * সামাজিক উন্নয়ন।

৯। সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন।

     বেইজলাইন সার্ভেঃ- ৬০টি গ্রামের বেইজলাইন সার্ভের মাধ্যমে গ্রাম তথ্য বই প্রণীত হয়েছে।

     সমিতির কার্যক্রমের সার্বিক তথ্য ঃ-

১। প্রকল্পভূক্ত নিবন্ধিত সমিতির সংখ্যাঃ- ৬০টি।

২। অমত্মর্ভুক্ত পরিবারের সংখ্যাঃ- ৪,৭৯০ টি।

৩। সমিতির মোট সদস্য সংখ্যাঃ-৬,৮০৩ জন। পুরম্নষ=৪,২৮০ জন, মহিলা=২,৫২৩ জন।

৪। সমিতির আদায়কৃত শেয়ার আমানত = ৩৮,৬৮,৬০০/-।

৫। সমিতির আদায়কৃত সঞ্চয় আমানত = ৭২,৮৬,৮০০/-।

৬। সমিতির সংগৃহীত মোট পুজিঁ         = ১,১১,৫৫,৪০০/-

৭। সমিতি নিজস্ব তহবিল ÿুদ্র ঋণ ও আয়বর্ধক  কার্যক্রমে বিনিয়োগঃ- ৯৫,১০,০০০/-।

     (যেমনঃ- গরম্ন মোটাতাজাকরণ,হাসঁ-মুরগী পালন,সবজি চাষ,নারসারী ইত্যাদি খাতে বিনিয়োগ।)

৮। আত্ন-কর্ম সংস্থান সৃষ্টিঃ- প্রত্যÿ ও পরোÿ ভাবে সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতিগুলির মাধ্যমে ৪৮০ জনের আত্ন-কর্ম

     সংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে এবং মোট উপকার ভোগীর সংখ্যা ৭৬৬০ জন।

    প্রকল্পের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রশিÿণ

ক্রঃনং

ট্রেডের নাম

  মেয়াদ

প্রশিÿণের স্থান

প্রশিÿণার্থীর

সংখ্যা

সার্টিফিকেট ও সেলাই মেশিন প্রদান।

০১

সেলাই প্রশিÿণ

২১ দিন

ঈশ্বরগঞ্জ,ময়মসিংহ

১০ জন।

সার্টিফিকেট ও সেলাই মেশিন প্রদান।

০২

ইলেকট্রনিক্স/মোবাইল সার্ভিসিং

২১ দিন

টিটিসি,ময়মনসিংহ

২০ জন।

সার্টিফিকেট ও টুলবক্স

 প্রদান।

০৩

ইলেকট্রনিক্স/মোবাইল সার্ভিসিং

২১ দিন

টিটিসি,ময়মনসিংহ

২০ জন।

সার্টিফিকেট ও টুলবক্স

 প্রদান।

০৪

পস্নাম্বিং এন্ড পাইপ ফিটিং

২১ দিন

টিটিসি,ময়মনসিংহ

২০ জন।

সার্টিফিকেট ও টুলবক্স

  প্রদান ।

০৫

ইলেকট্রিক্যাল ও হাউজওয়ারিং

২১ দিন

টিটিসি,ময়মনসিংহ

২০ জন।

সার্টিফিকেট ও টুলবক্স

  প্রদান ।

০৬

ইলেকট্রিক্যাল ও হাউজওয়ারিং

২১ দিন

টিটিটিআই,গাজীপুর

২০ জন।

সার্টিফিকেট ও টুলবক্স

  প্রদান।

০৭

সেলাই প্রশিÿণ

২১ দিন

ঈশ্বরগঞ্জ,ময়মনসিংহ

২০ জন।

সার্টিফিকেট ও সেলাই মেশিন প্রদান ।

 

 

            মোট প্রশিÿণার্থীর সংখ্যা

১৩০জন।

 

 

                                            পুরম্নষ-১০০ জন, মহিলা-৩০ জন=১৩০জন ।

   ৩ দিন মেয়াদী আয়বর্ধনমূলক বিভিন্ন প্রশিÿণঃ- যেমন-সমবায় ব্যবস্থাপনা , সমবায় সমিতির হিসাব সংরÿণ ও অর্থ ব্যবস্থাপনা,

                                                       কৃষি উন্নয়ন,হাসঁ-মুরগী ও গবাদী পশু পালন, উন্নত মৎস্য চাষ, মহিলা ও মাইনর

                                                        উন্নয়ন এবং নেতৃত্ব বিকাশ,কেচোঁ কম্পোজ ইত্যাদি । প্রশিÿণার্থীর সংখ্যা-

                                                        পুরম্নষ=৩৯৭,মহিলা-৮৩ জন= মোট ৪৮০জন ।  

                                                        মোট প্রশিÿণার্থীর সংখ্যাঃ- ২৮৬০ জন।

  গ্রাম উন্নয়ন কর্মী /সমবায়ীদের ১ দিনের অবহিতকরণ প্রশিÿণঃ-পুরম্নষ-১৬৮৭ জন,মহিলা-৫৬৩ জন,মোট=২২৫০জন।

  যৌথ সভায় প্রশিÿণার্থীর অংশ গ্রহণঃ- পুরম্নষ-৩৯৫১জন,মহিলা-৮৪৯জন, মোট=৪৮০০জন।

  প্রশিÿণের মাধ্যমে  আত্ন-কর্মসংস্থানের সৃষ্টি =৪৮০ জন।

  মোট উপকার ভোগীর সংখ্যাঃ- ৭৬৬০ জন।

        সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির প্রধান উদ্দেশ্যেই হলো দারিদ্র বিমোচন করে জীবনের মান উন্নয়ন। কিন্তু পুজিঁ ছাড়া কোন কিছুই করা সম্ভব নয়। পুজিঁহীন অবস্থা থেকে পুজিঁ গঠন করা খুবই কঠিন কাজ। এই কঠিন কাজটাই চারিত্রিক ধৈর্য ও সহ্য দ্বারা সম্পন্ন করতে পারেন মহিলারা। সঞ্চয়ের অভ্যাস ব্যতীত পুজিঁ গঠন আদৌও সম্ভব নয়।  ভাত রান্নাচাল থেকে মুষ্ঠি পদ্ধতিতে চাল

সঞ্চয়,মাটির ব্যাংক বা বাশেঁর খুটির চোঙ্গায় খুচরা টাকা ও মুদ্রা সঞ্চয়ের মাধ্যমে অনেক কষ্ট সহ্য করে হলেও মহিলারা ÿুদ্র  বিনিয়োগের ÿুদ্র পুজিঁ গঠন করতে পারেন। এতে সমিতির মাসিক সঞ্চয় ও চাদাঁ আদায় সম্ভব। তাছাড়া ÿুদ্র ব্যবসায় বিনিয়োগ করা যায়। দারিদ্রের দুষ্টচক্র ভাংতে পুজিঁ যে বড় আঘাতের প্রয়োজন, তা সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির মহিলা সদস্যের সঞ্চয়ের দ্বারাই সম্ভব। অতএব প্রশিÿণ দ্বারা দÿ জন শক্তি সৃষ্টি  ও সঞ্চয়ের পুজিঁ সৃষ্টি এবং বিনিয়োগের মাধ্যমে দারিদ্র বিমোচন ও আত্ন-কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে উক্ত প্রকল্পের ভূমিকা কিছুটা হলেও সমাজে অবদান রাখতে সÿম হয়েছে। উপজেলা সমবায় দপ্তরের পÿ থেকে সকলকে আমত্মরিক ধন্যবাদ ।     

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter